মেনু নির্বাচন করুন

শিরোনাম
কমিউনিটি ক্লিনিক
বিস্তারিত

রাজৈর উপজেলাধীন আমগ্রাম ইউনিয়নের বাসাবাড়ী এবং আমগ্রাম পশ্চিমপাড়া গ্রামে অবস্থিত কমিউনিটি ক্লিনিক। এই ক্নিনিকটি জনসাধারনের স্বাস্থ্য সেবায় সর্বদা নিয়োজিত । অত্র অঞ্চলের সর্বস্তরের জনসাধারন এখানে বিনামূলে প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা পেয়ে থাকেন। সেবা নিন সুস্থ থাকুন।

ছবি
ডাউনলোড
label.column.field_office_cism

০১) সেবার নাম: প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা।

কিভাবে পাবেন: ক্লিনিকে আগত যে কোন রোগী প্রথমে তার নাম রেজিষ্টার করবেন। অত:পর ক্লিনিকে কর্মরত সিএইচসিপির নিকট তার সমস্যা সম্পর্কে বিস্তারিত বলবেন। সিএইচসিপি সংশ্লিষ্ট রোগীর অবস্থা অনুযায়ী চিকিৎসা দিবেন। যদি রোগ জটীল হয়ে থাকে তাহলে সিএইচসিপি তাৎক্ষনিক ভাবে উক্ত রোগীকে অপেক্ষাকৃত উচ্চতর চিকিৎসা সেবা কেন্দ্রে রেফার করবেন।

 

০২) সেবার নাম: সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচী।

কিভাবে সেবা পাবেন: প্রতি মাসের তৃতীয় রবিবার অত্র ক্লিনিকে সবজাতক শিশুদের টিকা দেয়া হয়। এছাড়াও গর্ভবতী মা এবং কিশোরীদের টি,টি,টিকা দেয়া হয়। গর্ভবতী মায়ের নিয়োমিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয় এবং যথাযথ ঔষধ সরবরাহ করা হয়।

 

০৩) সেবার নাম: পরিবার পরিকল্পনা সেবা।

কিভাবে পাবেন: জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রনের লক্ষে সিএইচসিপি, এইচএ এবং এফডব্লিউএ সকলকে উদ্ধুদ্ধ করেন। এ লক্ষে বিনামূল্যে জন্ম নিয়ন্ত্রন বড়ি, কনডম ও ইনজেকশন প্রদান করা হয়। এছাড়াও দীর্ঘস্থায়ী জন্মনিয়ন্ত্রনের ব্যাবস্থা গ্রহনের ক্ষেত্রে সকলকে উদ্বুদ্ধ করা হয় এবং আগ্রহীদেরকে উচ্চতর সেবা কেন্দ্রে নেয়ার ব্যাবস্থা করা হয়।

সিটিজেন চার্টার

 

 

সেবা গ্রহিতা যে সকল সেবা পাওয়ার অধিকার সংরক্ষণ করেন

১. কমিউনিটি ক্লিনিকে  আগত নারী-পুরুষ, বৃদ্ধ-যুব-শিশু সকলকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হয়।

২. ডায়রিয়া রোগীদের জন্য ওআরএস সরবরাহ করা হয়।

৩. কমিউনিটি ক্লিনিকে  আগত প্রসূতি রোগীদের এন্টিনেটাল চেকআপসহ প্রয়োজনীয় উপদেশ দেয়া হয় এবং আয়রন

ট্যাবলেট সরবরাহ করা হয়।

৪. জাতীয় যক্ষ্মা ও কুষ্ঠ নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমেরআওতায় যক্ষ্মা রোগীদের কফ্ পরীক্ষার জন্য কফ সংগ্রহ করা হয়

৫. শিশু ও মহিলাদের ইপিআই কার্যক্রমেরআওতায় প্রতিষেধক টিকা দেওয়া হয়।

৬. কমিউনিটি ক্লিনিকে  আগত রোগীদের স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষা দেওয়া হয়।

৭. কমিউনিটি ক্লিনিকে  আগত কিশোর-কিশোরী ও সক্ষম দম্পতিদের মধ্যে প্রজনন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

৮. প্রয়োজনে রোগীকে উপজেলা হাসপাতালে রেফার করা হয়।

৯. আগত রোগী ও তাদের আত্মীয়স্বজনগণ স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও উপদেশের জন্য সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকগণের সাথে সহজেই যোগাযোগ করতে পারেন।

১০. কমিউনিটি ক্লিনিকে প্রয়োজনীয় সংখ্যক নোটিশ বোর্ড সবার দৃষ্টি গোচর হয় এমন জায়গায় স্থাপিত আছে।নোটিশ বোর্ডে প্রয়োজনীয় তথ্য লিপিবদ্ধ আছে।

১১. সরবরাহ সাপেক্ষে ঔষধসমূহ সেবাকেন্দ্র হতে বিনামূল্যে প্রদান করা হয়।

১২. বোর্ডে মজুদ ঔষধের তালিকা, প্রদানকৃত সেবাসমূহের তালিকা, সেবা প্রদানকারী চিকিৎসকের তালিকা টানানো আছে।

label.column.field_important_info

রাজৈর উপজেলাধীন আমগ্রাম ইউনিয়নের বাসাবাড়ী গ্রামে অবস্থিত কমিউনিটি ক্লিনিক। এই ক্নিনিকটি জনসাধারনের স্বাস্থ্য সেবায় সর্বদা নিয়োজিত । অত্র অঞ্চলের সর্বস্তরের জনসাধারন এখানে বিনামূলে প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা পেয়ে থাকেন। সেবা নিন সুস্থ থাকুন।

 

মোঃ মেরজান কাজী

সি, এইচ, সি,পি

বাসাবাড়ী কমিউনিটি ক্লিনিক।

মোবাইল:

আমগ্রাম ইউনিয়ন।

গ্রাম: আমগ্রাম, ডাকঘরঃ আমগ্রাম,

উপজেলাঃ রাজৈর,

জেলা: মাদারীপুর।

label.column.field_projects

 

 

কমিউনিটি ক্লিনিক হবে স্বাস্থ্যসেবার তথ্যভান্ডার

 

কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্যসেবার সুফল ভোগ করছেন গ্রামীণ জনপদের মানুষ। দিনে দিনে সম্প্রসারিত হচ্ছে কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্যসেবার কার্যক্রম। চালু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত ১৭ কোটির বেশি রোগী কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্যসেবা পেয়েছেন। স্বাস্থ্যসেবা বঞ্চিত গ্রামীণ জনপদের মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার জনকল্যাণমূলক এ প্রকল্পটি চালু করে। পরবর্তী জোট সরকার এ প্রকল্পটি বন্ধ করে দিলেও আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর আবার চালু করে কমিউনিটি ক্লিনিকের কার্যক্রম। চলছে আধুনিকায়নের কাজ। মা শিশুসহ সব রোগীর তথ্য সংরক্ষণ করার জন্য কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোকে সরবরাহ করা হবে ল্যাপটপ। ভবিষ্যতে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোই হবে গ্রামীণ জনপদের স্বাস্থ্যসেবার তথ্যভান্ডার।
সম্প্রতি স্বাস্থ্যসেবায় অবদানের জন্য দেশের সাতটি শ্রেষ্ঠ কমিউনিটি ক্লিনিকের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী জানান, ‘২০০৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১৭ কোটির বেশি মানুষ এসব কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে সেবা পেয়েছেন। বর্তমানে ২২৪টি কমিউনিটি ক্লিনিকে স্বাভাবিক প্রসবের ব্যবস্থা চালু আছে। এসব ক্লিনিকে প্রায় ২ হাজার ৫০০ স্বাভাবিক প্রসব হয়েছে। প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকে পর্যায়ক্রমে ল্যাপটপ সরবরাহ করা হবে। ভবিষ্যতে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোই হবে ওই এলাকার তথ্যভা-ার। মা ও শিশুসহ সব রোগীর তথ্য থাকবে কম্পিউটারে। সব ধরনের রিপোর্টিং সহজ হবে।’
কমিউনিটি ক্লিনিকের সেবা গ্রহণে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে পল্লী অঞ্চলে ৬ কোটি মানুষের মোবাইল ফোনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কণ্ঠ পাঠানো হয়েছে। টেলিটকের একটি নম্বর থেকে সব ধরনের মোবাইল ফোনে এটি প্রচার করা হবে। প্রতিদিন ২০ লাখ মানুষের কাছে এ কল যাবে।
প্রধানমন্ত্রী মোবাইল ফোনে গ্রাহকদের বলছেন, ‘প্রিয় দেশবাসী আসসালামু আলাইকুম। আমি শেখ হাসিনা আপনাদের সেবায় নিয়োজিত। আপনাদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য আমরা কমিউনিটি হেলথ কেয়ার সেন্টার করে দিয়েছি, আপনাদের দোরগোড়ায় চিকিৎসাসেবা পৌঁছে দিচ্ছি। আপনারা এ কমিউনিটি হেলথ কেয়ার সেন্টারে আসুন, চিকিৎসাসেবা নিন। মা, শিশু এবং পরিবারের সবাই মিলে আপনারা এ চিকিৎসাসেবা নেবেন। আপনারা সুস্থ থাকবেন, ভালো থাকবেন সেটাই আমাদের কামনা। কমিউনিটি হেলথ কেয়ার সেন্টার আপনাদের সেবায় নিয়োজিত।’
স্বাস্থ্যসেবায় অবদানের জন্য চলতি বছর জাতীয় পর্যায়ে সাতটি শ্রেষ্ঠ কমিউনিটি ক্লিনিককে পুরস্কৃত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রথম পুরস্কার পেয়েছে নড়াইলের সিঙ্গাসোলপুর ইউনিয়নের বড়োগাতি কমিউনিটি ক্লিনিক, দ্বিতীয় পুরস্কার পেয়েছে লালমনিরহাটের কুচলিবাড়ি ইউনিয়নের পানবাড়ি কমিউনিটি ক্লিনিক, তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছে পানার ধোপাদাহা ইউনিয়নের কমিউনিটি ক্লিনিক, চতুর্থ পুরস্কার পেয়েছে মৌলভীবাজারের জাফরনগর ইউনিয়নের বোগটেরা কমিউনিটি ক্লিনিক, পঞ্চম পুরস্কার পেয়েছে কুমিল্লার পঞ্চবটি ইউনিয়নের শরিফপুর কমিউনিটি ক্লিনিক, ষষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছে কিশোরগঞ্জ জেলার মারিয়া ইউনিয়নের বুড়ংগাচর কমিউনিটি ক্লিনিক এবং সপ্তম পুরস্কার পেয়েছে ভোলারচর সামাইয়া ইউনিয়নের চর শিফলি কমিউনিটি ক্লিনিক। প্রতিটি ক্লিনিককে পুরস্কার হিসেবে একটি করে ক্রেস্ট ও সনদ এবং ল্যাপটপ দেয়া হয়েছে।
কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, সরকার গ্রামীণ জনপদের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কমিউনিটি ক্লিনিকের কার্যক্রম সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। বর্তমানে ২৯৮টি নতুন কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণাধীন রয়েছে। আরও ৬০৬টি কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণের জন্য জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। কমিউনিটি হেলথ প্রোভাইডারদের (সিএইচসিপি) প্রশিক্ষণ ও কমিউনিটি গ্রুপ প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে। প্রথম পর্বে ৮ হাজার ৮৪৮ জন এবং দ্বিতীয় পর্বে ৪ হাজার ৩৭৭ জন কমিউনিটি হেলথ প্রোভাইডারকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। গ্যাভি-এইচএসএসের অর্থায়নে ১৩ জেলার ১ হাজার ৮২১টি কমিউনিটি গ্রুপের ২৩ হাজার ৬৭৩ জন সদস্যকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। তাছাড়া অন্যান্য সহযোগী সংস্থার সহযোগিতায় ১ হাজার ৭৯টি কমিউনিটি গ্রুপের ১৪ হাজার ২৭ জন সদস্যকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি ৪৬টি জেলার ৩২৯টি উপজেলার কমিউনিটি গ্রুপের প্রায় দেড় লাখ সদস্যদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে।
কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্প সূত্র আরও জানা যায়, কমিউনিটি ক্লিনিকের জন্য স্থানীয় পর্যায়ে ফান্ড সৃষ্টি করা হবে। স্বেচ্ছায় যারা দেবেন, তাদের কাছ থেকেই ফান্ডের টাকা গ্রহণ করা হবে। রোগীদের টাকা দিতে বাধ্য করা হবে না। রোগীদের কেউ দিতে চাইলে তাও গ্রহণ করা হবে।
কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্পের আওতায় রোগীর অবস্থা অনুযায়ী বিতরণের জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ ধরনের ওষুধ। এগুলো হচ্ছেÑ এমোক্সিসিলিন, ডক্সিসাইক্লিন, অ্যাজিথ থ্রোমাইসিন স্টিয়ারেট, অ্যালবেনডাজল, ক্যালসিয়াম, ক্লোরফেনিরামিন, মেট্রোনিডাজল, অ্যান্টাসিড, ল্যাকটেট, কো-ট্রাইমোক্সাজল, ফেরাস ফিউমারেট উইথ ফলিক-এসিড, হাইয়োসিন এন বিউটাইলব্রোমাইড, প্যারাসিটামল, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, জিঙ্ক ডিসপারসিবল, পেনিসিলিন বি, এমোক্সিসিলিন পেডিয়াট্রিক ড্রপ, অ্যাজিথ থ্রোমাইসিন ড্রাই সিরাপ, ক্লোরফেনিরামিন, বেনজাইল বেনজোয়েট, প্যারাসিটামল সাসপেনশন, ক্লোরহেক্সিডাইন অ্যান্ড কেট্রিমাইড সল্যুশন, সালবিউটামল, কম্পাউন্ড বেনজোয়িক অ্যাসিড অয়েনমেন্ট, জেনটিয়ান ভায়োলেট টপিক্যাল সল্যুশন, নিউমাইসিন অ্যান্ড বেসিট্রাসিন অয়নমেন্ট, ক্লোরামফেনিকল আই অয়েনমেন্ট। আরও রয়েছে পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি উপকরণ।

যোগাযোগ

 

রাজৈর উপজেলাধীন আমগ্রাম ইউনিয়নের বাসাবাড়ী গ্রামে অবস্থিত কমিউনিটি ক্লিনিক। এই ক্নিনিকটি জনসাধারনের স্বাস্থ্য সেবায় সর্বদা নিয়োজিত । অত্র অঞ্চলের সর্বস্তরের জনসাধারন এখানে বিনামূলে প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা পেয়ে থাকেন। সেবা নিন সুস্থ থাকুন।

 

মোঃ মেরজান কাজী

সি, এইচ, সি,পি

বাসাবাড়ী কমিউনিটি ক্লিনিক।

মোবাইল:

আমগ্রাম ইউনিয়ন।

গ্রাম: আমগ্রাম, ডাকঘরঃ আমগ্রাম,

উপজেলাঃ রাজৈর,

জেলা: মাদারীপুর।